ওমিক্রনে দক্ষিণ আফ্রিকায় মৃত্যুহার দ্বিগুণ হয়ে যাচ্ছে

ইসরায়েলের গণস্বাস্থ্যসেবাপ্রধান ডা. শ্যারন অ্যালরয়-প্রেইস আজ রবিবার নেসেট আইন প্রণয়ন কমিটির এক সভায় যোগদান করেন। সভায় করোনাভাইরাসের নতুন ভেরিয়েন্ট ওমিক্রনের প্রাদুর্ভাবের পর কী কী ব্যবস্থা নেওয়া যেতে পারে তা নিয়ে আলোচনা করা হয়।

আলোচনার সময় ডা. শ্যারন বলেন, অক্টোবরের শুরুতে করোনার এই নতুন ভেরিয়েন্টের আবির্ভাব। প্রথম দেখা মেলে দক্ষিণ আফ্রিকায়, এর পরপরই হংকংয়ে। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে বিমানে ফেরা যাত্রীদের শরীরে এর দেখা মেলে। এটি সন্দেহাতীতভাবে একটি ভীষণ উদ্বেগজনক ভেরিয়েন্ট। এর মধ্যে রয়েছে অসংখ্য অজানা মিউটেশন। আমরা বিষয়টি নিয়ে গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। দুঃসংবাদ হলো, এর স্পাইক প্রোটিনে ভেরিয়েন্টটি ৩৮ বার তার রূপ বদল করেছে।

তিনি আরো বলেন, এটি খুব দ্রুত সংক্রমণশীল। একটি উদাহরণ দিলে বিষয়টি আরো স্পষ্ট হবে। নেদারল্যান্ডসের একটি ফ্লাইটে ছয় শ জন যাত্রী ছিলেন। তাঁদের মধ্যে ৩২ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। আর এই ৩২ জনের মধ্যে ১৩ জনের শরীরে ছিল ওমিক্রন ভেরিয়েন্ট। আমরা এ-ও জেনেছি, পুরোপুরি ভ্যাকসিনেটেড মানুষও এই নতুন ভেরিয়েন্টের মুখোমুখি হচ্ছেন এবং তাঁদের মধ্যে সামান্য লক্ষণ পরিলক্ষিত হচ্ছে।

তিনি বলেন, আমি জানি না নতুন এই ভেরিয়েন্টটি মৃত্যুর হারের ওপর কতটা প্রভাব ফেলবে। তবে এটুকু জানি- দক্ষিণ আফ্রিয়ায় মৃত্যুর হার এর মধ্যেই দ্বিগুণ হয়ে গেছে।
সূত্র : ইসরায়েল ন্যাশনাল নিউজ ডটকম।



(পরবর্তী সংবাদ ..) »



Related News

  • ফিলিপাইনে ভ্যাকসিন না নিলেই গ্রেফতার
  • পাকিস্তানের প্রথম নারী বিচারপতি আয়েশা মালিক
  • মেক্সিকোতে গাড়ি থেকে ১০ মরদেহ উদ্ধার
  • পুতুলের মাথা কেটে নেওয়ার ঘোষণা তালেবানের
  • কাশ্মীরে গোলাগুলিতে নিহত ৬
  • ইসরাইলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর সঙ্গে মাহমুদ আব্বাসের বৈঠক
  • মিয়ানমারে ৩০ জনকে হত্যা করে লাশ পুড়িয়ে দিলো জান্তা বাহিনী
  • লিবিয়া উপকূলে এক সপ্তাহে ১৬০ অভিবাসীর মৃত্যু
  • %d bloggers like this: