SL News খেলাধুলা

মেসিময় ম্যাচ, শেষ আটে বার্সেলোনা

ম্যাচের আসল নায়ক আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসি। মেসি জ্বলে উঠলে প্রতিপক্ষের কী দশা হয় তা আবারো দেখল ফুটবল বিশ্ব। ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের দল লিঁওর জালে রীতিমত গোল উৎসব করলেন আর্নেস্তো ভালভার্দের শিষ্যরা। জোড়া গোলের পাশাপাশি আর্জেন্টাইন সুপারস্টার দুই গোল করালেন সতীর্থদের দিয়ে। বিশাল জয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে উঠে গেল বার্সেলোনা।

বুধবার ন্যু ক্যাম্পের ম্যাচে সফরকারী দলকে ৫-১ গোলে হারায় বার্সেলোনা। পুরো ম্যাচে দুর্দান্ত খেলা মেসি জেরার্ড পিকে ও ওউসমান দেম্বেলের গোলে রাখেন অবদান। অন্য গোলটি ফিলিপ কুতিনহোর। প্রথম লেগের ম্যাচটি গোলশূন্য ড্র হয়।

ঘরের মাঠে এ নিয়ে টানা ৩০ ম্যাচ (জয় ২৭, ড্র ৩) অপরাজিত রইল বার্সেলোনা। ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় যা নতুন রেকর্ড।

ম্যাচের শুরু থেকেই সফরকারীদের রক্ষণে চাপ বাড়াতে থাকে স্বাগতিকরা। চতুর্থ মিনিটে লিঁও গোলরক্ষককে প্রথম পরীক্ষায় ফেলেন মেসি। ডি বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া আর্জেন্টাইন তারকার বাম পায়ের জোরালো শট ডান দিকে ঝাঁপিয়ে রুখে দেন অ্যান্থনি লোপেজ।

১৬ মিনিটে প্রতিপক্ষের ডি বক্সে ফাউলের শিকার হন লুইস সুয়ারেজ। স্পট কিকে পানেনকা শট নিয়ে দলকে এগিয়ে নেন মেসি।

মুসা ডেম্বেলে ও মেম্ফিস ডিপাইয়ের বোঝাপড়ায় ২০ মিনিটে প্রথম সুযোগ পায় লিঁও। ডেম্বেলের নেয়া শট বার্সা ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে লক্ষ্যভ্রষ্ঠ হয়। এই গোল দিয়ে বার্সার হয়ে টানা ১১ মৌসুম সব প্রতিযোগিতা মিল কমপক্ষে ৩৫টি করে গোল করলেন ৩১ বছর বয়সী।

৩১ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ফিলিপ কুতিনহো। তবে গোলের কৃতিত্ব বলতে গেলে পুরোটাই সুয়ারেজের। বাঁ প্রান্তে ফাঁকায় উরুগুয়ান তারকার বাড়ানো বল কুতিনহো জালে পাঠান মাত্র।

অধিকাংশ সময় বলের দখল রেখে প্রথমার্ধের বাকি সময়েও আক্রমণ অব্যাহত রাখে কাতালান দলটি। এ সময় তারা লক্ষ্যে মোট ছয়বার শট নেয়।

বিরতির পরও শুরু থেকেই আক্রমণ অব্যাহত রাখে স্বাগতিকরা। তৃতীয় মিনিটে চিপ শটে গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে বল জালের দিকে পাঠিয়ে দেন মেসি। দৌঁড়ে এসে গোললাইনের কাছ থেকে বল বিপদমুক্ত করেন লিঁও ডিফেন্ডার।

৫৮ মিনিটে বার্সার ডি বক্সে জটলার মধ্যে বল পেয়ে লুকা তুজা ব্যবধান কমান। ৭০ মিনিটে কুতিনহোর বদলি নামেন ওউসমান দেম্বেলে। গতি ফেরে বার্সার খেলায়। প্রতিপক্ষ ডি বক্সে ওঠে মেসি ঝড়। যে ঝড়ে শেষ ১৩ মিনিটে আরও তিন গোল খেয়ে বিদায় নেয় লিঁও।

এই জয়ে রেকর্ড টানা ১২ বারের মতো চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে পা দিল বার্সেলোনা। সর্বশেষ ২০০৬/০৭ মৌসুমে লিভারপুলের কাছে হেরে বিদায় নিয়েছিল দলটি।

About the author

szaman

Add Comment

Click here to post a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

March 2019
S M T W T F S
« Feb    
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
31