শিক্ষাঙ্গন

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে লোক প্রশাসন দিবস পালিত

নানা আয়োজনের মধ্যে দিয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) লোক প্রশাসন দিবস পালিত হয়েছে।

এ উপলক্ষে রবিবার ক্যাম্পাসে আনন্দ শোভাযাত্রা, বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে আলোচনা সভা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে লোক প্রশাসন বিভাগ।

সকাল সাড়ে ১১টায় বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. জুলফিকার হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী উপস্থিত ছিলেন।

বিভাগের শিক্ষার্থী সাম্মি ও সাদিকের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সেলিম তোহা। সম্মানিত অতিথি হিসেবে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. নাসিম বানু ও লোক-প্রশাসন দিবস উদযাপন উপ-কমিটির আহবায়ক অধ্যাপক ড. এ কে এম মতিনুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও আলোচনা সভায় ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. পরেশ চন্দ্র বর্ম্মণ, বিভাগের অধ্যাপক ড. বেগম রোকসানা মিলি, অধ্যাপক মোহাম্মাদ সেলিম, অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান, অধ্যাপক গিয়াস উদ্দিন, অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান, সহযোগী অধ্যাপক ফখরুল ইসলাম, মুন্সী মুর্তজাসহ বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, লোক প্রশাসন দিবস উপলক্ষে সকাল সাড়ে দশটার দিকে বিভাগটির সভাপতি অধ্যাপক ড. জুলফিকার হোসেনের নেতৃত্বে মীর মশাররফ হোসেন একাডেমিক ভবনের সামনে থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা শুরু হয়। শোভাযাত্রাটি ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ শেষে বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে আলোচনা সভায় মিলিত হয়।

অনুষ্ঠানে লোক প্রশাসন বিভাগের কর্মকান্ডের উপর নির্মিত একটি প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন করা হয। বিভাগের কৃতি শিক্ষার্থীদের চেয়ারম্যান অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। লীডারশীপ অ্যাওয়ার্ডসহ বিভাগীয় বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় সেরা শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী বলেন, মানুষের ব্যাক্তিগত জীবন থেকে শুরু করে পারিবারিক, সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় এমনকি বৈশ্বিক জীবনে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন রয়েছে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করার। প্রাতিষ্ঠানিকভাবে সুশাসন কীভাবে প্রতিষ্ঠিত করতে হয় সেই দায়িত্বটি সবচেয়ে বেশি বর্তায় লোক প্রশাসনের বিভাগের উপর। একুশ শতকের একটি বাসযোগ্য পৃথিবী বিনির্মাণে সুশিক্ষিত ও দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলতে হবে।

তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা উচ্চশিক্ষাস্তরে গবেষণার উপর বিশেষ গুরুত্বারোপ করেছেন। তাই গবেষণার ক্ষেত্রটিকে আরও প্রশস্ত করতে হবে। তদসঙ্গে পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধি করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে দেশসেবায় ব্রতী হতে হবে।

উপাচার্য শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা যদি বিষয় ভিত্তিক জ্ঞান, প্রেজেন্টেশন স্কিল এবং সাধারণ জ্ঞানের উপর দক্ষ হয়ে ওঠে তবে আমি বাজি ধরে বলতে পারি একুশ শতকের বিশ্বে কোন শিক্ষার্থীকে বেকার থাকতে হবে না। তাদের বিজয় সুনিশ্চিত। এছাড়াও তিনি শিক্ষার্থীদের গবেষণা মুখী হিসেবে তৈরি করতে শিক্ষকদের প্রতি গুরুত্বারোপ করেন।

শেষে বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহনে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

এদিকে এর আগে লোক প্রশাসন দিবস উপলক্ষে বিভাগে নানা কর্মসূচি পালন করে বিভাগটি। পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান, পীঠা উৎসব এবং আগামীকাল সোমবার বিভাগে স্থানীয় সরকার বিষয়ের উপর একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। বিভাগের একাডেমি সভায় সর্বসম্মতিক্রমে এই দিনে লোক প্রশাসন দিবস হিসেবে পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

About the author

quicknews

Add Comment

Click here to post a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

July 2019
S M T W T F S
« Jun    
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031