স্বাস্থ্য তথ্য

কাঁচা মরিচে কমে হৃদরোগের ঝুঁকি

কাঁচা মরিচ বাঙালি রান্নার অতি প্রয়োজনীয় উপাদান। নিত্যদিনের রান্না কাঁচা মরিচ ছাড়া ভাবাই যায় না। এটি রান্নাকে করে তোলে অনেক বেশি স্বাদের। সেই প্রাচীনকাল থেকে কাঁচা মরিচ রান্নায় ব্যবহৃত হয়ে আসলেও এর পুষ্টিগুণ সম্পর্কে জানেন না অনেকেই। কাঁচা মরিচ কি শরীরের উপকার করে নাকি ক্ষতি করে? চলুন জেনে নেওয়া যাক কাঁচা মরিচে কী কী পুষ্টিগুণ রয়েছে।

মেটাবলিজম বৃদ্ধি :

কাঁচা মরিচে এমন কিছু উপাদান রয়েছে যার ফলে এটি খাওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে শরীরের মেটাবলিজমের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়। বিজ্ঞানীরা অনুসন্ধান করে জানতে পেরেছেন যে কাঁচা মরিচ মানবদেহে মেটাবলিজমের ক্ষমতা ৫০ ভাগ অবধি বৃদ্ধি করতে পারে।

ক্যানসার প্রতিরোধে :

ক্যানসার প্রতিরোধেও কাঁচা মরিচের রয়েছে বেশ কার্যক্ষমতা। এতে এমন শক্তিশালী অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে যা ক্যানসারের বিরুদ্ধে কাজ করতে সক্ষম। তাই কাঁচা মরিচ খেলে ক্যানসার থেকে অনেকখানি মুক্ত থাকা যাবে।

হৃদরোগের ঝুঁকি কমায় :

কাঁচা মরিচে এমন কিছু উপাদান আছে যা রক্তের কোলেস্টেরলকে কমিয়ে রক্তকে বিশুদ্ধ করে। আর এর ফলে হৃদযন্ত্র অনেক বেশি সুস্থ থাকে। একই সাথে এটি হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকিও কমিয়ে ফেলে অনেকাংশে।

সাইনাসের সমস্যায় :

কাঁচা মরিচ সাইনাসের সমস্যা মাথা ব্যথা এবং ঠান্ডার ক্ষেত্রে দারুণ কার্যকরী। এসব রোগ প্রতিরোধে কাঁচা মরিচের ব্যবহার হয়ে আসছে সেই প্রাচীনকাল থেকেই। যে সব ব্যাকটেরিয়া শরীরের জন্য উপকারী হিসেবে চিহ্নিত কাঁচা মরিচে তার অনেকগুলোই বিদ্যমান।

চোখের জন্য ভালো :

কাঁচা মরিচে সবচেয়ে বেশি ভিটামিন সি এর উপস্থিতি রয়েছে। এছাড়াও এতে রয়েছে বিটা ক্যারোটিন নামক একটি উপাদান। এগুলো চোখের জন্য বেশ উপকারী। বিশেষ করে দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে কাঁচা মরিচের রয়েছে বিশেষ গুণ।

ত্বকের সুস্থ্যতায় :

ত্বক ভালো রাখতেও কাঁচা মরিচের রয়েছে দারুণ ক্ষমতা। ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায় নিয়মিত কাঁচা মরিচ খাওয়ার ফলে। এছাড়াও ত্বকে নানা রকম ইনফেকশনের হাত থেকেও রক্ষা করে কাঁচা মরিচ।

রক্তক্ষরণ কমায় :

কাঁচা মরিচে রয়েছে ভিটামিন কে এর মতো উপাদান। নিয়মিত কাঁচা মরিচ খেলে কাটা ছেঁড়ার ফলে রক্তক্ষরণ হলে খুব দ্রুতই তা বন্ধ হয়ে যায়।

হজম শক্তি বাড়ায় :

কারও যদি হজমের সমস্যা থাকে তবে কাঁচা মরিচ হতে পারে সমাধান। বেশি তেল মশলার রান্নায় কাঁচা মরিচ না খেয়ে অল্প তেলে অল্প ঝাল খেয়ে দেখুন উপকার পাবেন।

কাঁচা মরিচের এত এত গুণ থাকলেও চিকিৎসকদের পরামর্শ হচ্ছে খুব বেশি পরিমাণ কাঁচা মরিচ খেতে যাবেন না। এতে অনেক ক্ষেত্রে হিতে বিপরীত হতে পারে।

About the author

quicknews

Add Comment

Click here to post a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

September 2019
S M T W T F S
« Aug    
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930