সারাদেশ

চার জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় মা-মেয়েসহ নিহত ১১

পাবনা, বাগেরহাট, সিরাজগঞ্জ ও মুন্সিগঞ্জে দুই দিনে পাঁচ পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ১১ ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার সকালে পাবনার হিমাইতপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় মা ও মেয়ে নিহত হয়েছেন। সিরাজগঞ্জের সায়েদাবাদ এলাকায় দুটি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই ব্যক্তি ও কড্ডার মোড় এলাকায় বাস–ট্রাকের সংঘর্ষে চার ব্যক্তি নিহত হন। গতকাল বুধবার বাগেরহাটের মোল্লাহাটে ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী দুই স্কুলশিক্ষক নিহত হন। আজ মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া উপজেলায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে লরির চাপায় এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:

পাবনা: সদর উপজেলার হিমাইতপুর পুলিশ ফাঁড়ি সূত্র জানায়, হিমাইতপুরে ইউনিয়নে চরবাঙ্গাবাড়িয়া গ্রামে পণ্য পরিবহনের ইঞ্জিনচালিত ট্রলির সঙ্গে রিকশাভ্যানের ধাক্কায় মা ও মেয়ে নিহত হন। আহত একজন। নিহত মা ও মেয়ে হলেন চরবাঙ্গাবাড়িয়া গ্রামের আকবর হোসেনের স্ত্রী রিনি খাতুন (৩৫) ও তাঁর মেয়ে বর্ষা খাতুন (৭)। দুর্ঘটনায় আকবর হোসেন আহত হয়েছেন।

সকালে স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে রিকশাভ্যান চালিয়ে যাচ্ছিলেন আকবর হোসেন। রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা পণ্যবাহী ইঞ্জিনচালিত ট্রলি পেছন দিকে চলতে গিয়ে রিকশাভ্যানটিকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই বর্ষা খাতুন মারা যায়। তার মা রিনি খাতুন হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান। আহত আকবর হোসেনকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

হিমাইতপুর পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক হাবিবুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, ‘মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে নিয়ে যাচ্ছি। ঘাতক ট্রলিটিকে জব্দ করা হয়েছে। চালক পলাতক।’

সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জে বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম সংযোগ সড়কে পৃথক দুই সড়ক দুর্ঘটনায় ছয়জন নিহত হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে চারজন নিহত হন। নিহত ব্যক্তিরা সবাই বাসের যাত্রী ছিলেন। তাঁদের পরিচয় পাওয়া যায়নি। এর আগে ওই সড়কে গতকাল দিবাগত রাত দুইটার দিকে দুটি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুজন নিহত হন।

সিরাজগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের উপপরিচালক আবদুল হামিদ দুর্ঘটনায় ছয়জন নিহত হওয়ার তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক জানান, সিরাজগঞ্জে বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম সংযোগ সড়কে কড্ডার মোড় এলাকায় বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে চারজন নিহত হন। থেমে থাকা যাত্রীবাহী একটি বাসকে আরেকটি বাস পেছন থেকে ধাক্কা দিলে যাত্রীবাহী বাসটি সামনে থাকা ট্রাকের সঙ্গে ধাক্কা খায়। এতে অনেকেই আহত হন। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসকেরা চারজনকে মৃত ঘোষণা করেন।

এর আগে সিরাজগঞ্জের সায়েদাবাদ এলাকায় দুটি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই ব্যক্তি নিহত হয়। গতকাল রাত দুইটার দিকে বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম পাড়ে ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তিদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

বাগেরহাট: বাগেরহাটের মোল্লাহাটে ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী দুই স্কুলশিক্ষক নিহত হয়েছেন। গতকাল বিকেল সাড়ে চারটার দিকে মোল্লাহাট উপজেলার জয়ডিহি কাহালপুর বিদ্যুৎকেন্দ্রের সামনে বাগেরহাট-মাওয়া মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। রাতে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুই স্কুলশিক্ষক মারা যান।

নিহত শিক্ষক দুজন হলেন মোল্লাহাট উপজেলার সরোসপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক রফিকুল ইসলাম দুলাল (৪৫) ও একই উপজেলার সরোসপুর দক্ষিণপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বাহারুল আলম মোল্লা (৪৩)। তাঁদের বাড়ি সরোসপুর গ্রামে।

মোল্লাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী গোলাম কবির বলেন, মোল্লাহাট উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস থেকে বাড়ি ফিরছিলেন দুই শিক্ষক। গোপালগঞ্জ থেকে খুলনাগামী একটি ট্রাক মহাসড়কের ওই এলাকায় পৌঁছে একটি মোটরসাইকেলকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে দুই মোটরসাইকেল আরোহী আহত হন। চালক ট্রাক নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যান। স্থানীয় লোকজন তাঁদের উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

পুলিশ বলছে, ট্রাকটিকে আটকের চেষ্টা চলছে। লাশ ময়নাতদন্ত করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

মুন্সিগঞ্জ: গজারিয়া উপজেলায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে লরির চাপায় আবদুর রাজ্জাক নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। তিনি গুরুতর আহত ছিলেন। অ্যাম্বুলেন্সে করে তাঁকে চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়া হচ্ছিল। আজ সকাল সাড়ে ১০টার সময় উপজেলার বাউশিয়া ইউনিয়নের উজানভাটি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নিহত ব্যক্তির মেয়ে লাকি আক্তার (৩০) আহত হয়েছেন।

গজারিয়া ফায়ার স্টেশন ও প্রত্যক্ষদর্শী ব্যক্তিরা জানান, লাকি আক্তার তাঁর বাবাকে রাজধানীর একটি হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছিলেন। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে উজানভাটি এলাকায় ঢাকামুখী একটি লরি অ্যাম্বুলেন্সকে পাশ দিতে গিয়ে সড়কদ্বীপের ওপরে উঠে যায়। এতে লরির ওপরের কন্টেইনার অ্যাম্বুলেন্সের পেছনের অংশে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই চাপা পড়ে মারা যান আবদুর রাজ্জাক।

দুপুর ১২টার দিকে গজারিয়া হাইওয়ে পুলিশ পরিদর্শক মো. হাবিবুর রহমান জানান, পুলিশ ও গাজারিয়া দাউদকান্দি ফায়ার স্টেশনের সহযোগিতায় আবদুর রাজ্জাকের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

প্রথম আলোর হিসাব অনুযায়ী, আজ ১১ জনসহ ৬৪৪ দিনে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৬৬৬।

About the author

szaman

Add Comment

Click here to post a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

December 2018
S M T W T F S
« Nov    
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031